Deprecated: __autoload() is deprecated, use spl_autoload_register() instead in /customers/8/3/c/europerkatha.com/httpd.www/wp-includes/compat.php on line 502 ব্রিটিশ হোম সেক্রেটারীর বড় ভাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু – Europerkatha.com

ব্রিটিশ হোম সেক্রেটারীর বড় ভাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু

Posted on by

লন্ডন ডেস্ক :: ব্রিটিশ হোম সেক্রেটারী সাজিদ জাভিদের বড় ভাইয়ের মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে বিচার বিভাগীয় তদন্তের শুনানি চলছে। হোম সেক্রেটারীর ৫১ বছর বয়সী বড় ভাই তারিক জাভিদকে গত ২৯শে জুলাই ওয়েস্ট সাসেক্সের হরশামে অভিজাত হোটেল সাউথ লজের একটি রুমে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। এই হোটেলটি তার বাসা থেকে মাত্র তিন থেকে চার মাইল দূরে। ফাইভ স্টার এই হোটেলে এক রাতের জন্যে গুনতে হয় ৫শ পাউন্ড। এই হোটেলের বাথ টবে তার মরদেহ ভাসছিল। বাথে নামার আগে তিনি কোডিন জাতীয় ঘুমের ঔষধ এবং এলকোহল পান করেন বলে মঙ্গলবার ইনকুয়েস্টের প্রথম দিনের শুনানিতে উল্লেখ করা হয়েছে। তিনি হৃদরোগে ভুগছিলেন বলেও শুনানিতে জানানো হয়। ওয়েস্ট সাসেক্স করোনার তারিক জাভিদের মৃত্যুকে অস্বাভাবিক মৃত্যু বলে উল্লেখ করেছে। আগামী বছর ইনকুয়েস্টের পুরো শুনানি হবে।
বড় ভাই তারিক ডিভোর্স ছিলেন। ঘর থেকে মাত্র তিন মাইল দূরের ওয়েস্ট সাসেক্সের ফাইভ স্টার হোটেল সাউথ লজে পাঁচশ পাউন্ডের রুমে বড় ভাইয়ের মৃতদেহ সনাক্ত করেন ছোট ভাই বাসিত জাভিদ। বড় ভাই তারিক জাভিদের ইনকুয়েস্ট চলার সময় ছোট ভাই হোম সেক্রেটারী সাজিদ জাভিদ লেস্টারে পুলিশ সুপারিনটেনডেন্টস এসোসিয়েশনের বার্ষিক কনফারেন্সে বক্তব্য রাখছিলেন। সেখানে আরেক ভাই বাসিত বসে বসে হোম সেক্রেটারীর বক্তব্য শুনছিলেন।
তারিক জাভিদ তার বাবার মতো ব্যবসায়ী ছিলেন। তাদের বাবা আব্দুল গানি জাভিদ এবং মা জুবাইদা জাভিদ ছেলেদের নিয়ে ১৯৬১ সালে বিলেত এসেছিলেন। বাবা গানি প্রথমে বাস ড্রাইভারী করেন। এরপর ব্রিস্টলে কাপড়ের ব্যবসা শুরু করেন। বাবার পথ ধরে বড় তারিক নেমেছিলেন ব্যবসায়। বাকী চার ভাই স্বস্বপদে প্রতিষ্ঠিত হন।

হোম সেক্রেটারী সাজিদ জাভিদরা ৫ ভাই। তাদেরকে পাওয়ার ব্রাদার্স বলে ডাকা হয়। সবাই স্বস্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত। বড় ভাই তারিক জাভিদ ছিলেন বাবার মতো ব্যবসায়ী। চেইনসুপার মার্কেটের বস ছিলেন তিনি। ছোট ভাই সাজিদ জাভিদ ব্রিটিশ ইতিহাসে প্রথম মুসলিম হোম সেক্রেটারীর দায়িত্ব পালন করছেন। আরেক ভাই বাসিত জাভিদ ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস পুলিশের কমান্ডার। বাকী দুজনের একজন ফাইনান্সিয়াল এডভাইজার আরেক জন মাল্টি মিলিয়নিয়ার ল্যান্ডলর্ড।
গত জুলাই মাসে হোম সেক্রেটারীর এক মুখপাত্র তার বড় ভাই তারিক জাভিদের মৃত্যুর কথা প্রথম সংবাদ মাধ্যমকে জানান। একই সঙ্গে শোকাহত পরিবারের প্রাইভেসি বজায় রেখে তাদের শোক কাটিয়ে উঠার জন্যে সময় দিতে সবার প্রতি সহযোগিতা কামনার করেন হোম সেক্রেটারী।
উল্লেখ্য যে হোটেলে তারিক জাভিদের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে, ওয়েস্ট সাসেক্স কান্ট্রিসাইডের সেই ফাইভ স্টার হোটেলটি রোমান্টিক মুমেন্ট এবং বিশেষ ইভেন্ট উদযাপনের জন্যে বিখ্যাত। ২০০৯ সালে এই হোটেলে জি-২০ লন্ডন সম্মেলন হয়েছে। রাত্রী যাপন করেছেন সম্মেলনে আসা বিশ্ব নেতারা। এই হোটেলের একটি রুমে অবসর যাপন করতেন স্যার উইন্সটন চার্চিল। হোটেলের বিশাল ভিউ সবার মনোযোগ আকর্ষণ করে।ব্রিটবাংলা

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x